মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

ক)    ক্রুটিযুক্ত শিক্ষক নিয়োগ পদ্ধতি সংস্কার করা।

খ) ম্যানেজিং কমিটির জটিলতা নিরসন।

গ) শিক্ষকদের প্রাইভেট পড়ানোর প্রবণতাও বন্ধ করা্ ।

ঘ) বিভিন্ন কোচিং সেন্টার বন্ধ করা ।

                       এবতেদায়ী ও মাধ্যমিক স্তরের বই সংরক্ষণের জন্য গোডাউনের অভাব।

চ) পাবলিক পরীক্ষার জন্য নির্ধারিত কেন্দ্র না থাকায় কেন্দ্রের বিদ্যালয়সমূহ পরীক্ষাচলাকালীন পাঠদান থেকে বিরত না থাকা।

ছ) কোনকোন ক্ষেত্রে শ্রেণীকক্ষে শিক্ষকদের পূর্ণসময় (১০.০০টা- ৪.০০টা) পাঠদানে বাধ্যতামুলক করা।

জ) বিদ্যালয় গুলিতে অনাকাঙ্খিত মামলা-মোকর্দ্দমা বন্ধ করা।

ঝ) এনটিআসিএ-এর সনদ যাচাই।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter